Connect with us
20220205-223038-0000

ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ

বিটকয়েন কি পারবে আবার উচ্চতায় পৌঁছাতে ?

Published

on

ক্রিপ্টোকারেন্সির শুরু থেকেই বিটকয়েনের ব্যবহার হয়ে আসছে । দিন দিন অধিক ব্যবহারের জন্য এটির চাহিদা বাড়ছে । এই চাহিদার বিপরীতে পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকয় এটির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছিলো । যার ফলে ডিসেম্বরে এটি সর্বোচ্চ ৬৯ হাজার মার্কিন ডলারে পৌঁছে । বর্তমানে বাজারে দ্বিমুখী বিনিয়োগের কারনে দিন দিন বিটকয়েনে দরপতন লক্ষ্য করা যাচ্ছে । অনেক বিনিয়োগকারীর মতে বিটকয়েন এখনও এর সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছতে পারেনি । চলুন আজকে কয়েন আলাপে আমরাও একটি বিশ্লেষণ করে দেখি ।

স্বল্প ও মধ্যম মেয়াদী বিনিয়োগে বিটকয়েন

নিচের চার্টটি দৈনিক চার্ট । সাধারণত স্বল্প বা মধ্যম মেয়াদী বিনিয়োগের জন্য এই চার্টটি অধিক ব্যবহার করা হয় । বর্তমানে বিটকয়েন ৩৪৫৫০ ডলারে রয়েছে । এটিকে ভাল সাপোর্ট হিসেবেও বিবেচনা করা যায় । যদি বিটকয়েন এই সাপোর্টটি ধরে রাখতে পারে তাহলে স্বল্প মেয়াদে পুনরায় ৩৭৭০০ ডলারে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে ।

দৈনিক চার্ট

যদি এই সাপোর্টটি ধরে রাখতে না পারে তাহলে পরবর্তী সাপোর্ট ২৯২০০ ডলার । যা ২০২১ এর উর্ধমুখী বাজারের শুরু থেকেই বিটকয়েনকে সাপোর্ট দিয়ে আসছে । এই মূল্যে পৌঁছানোর সম্ভাবনা হলেই ভলিউমে বেশ ভাল একটা গতিবিধি লক্ষ্য করা যেতে পারে । তবে স্বল্প অথবা মধ্যম মেয়াদে ২৯২০০ ডলারের সাপোর্টকে ধরে রাখার একটি চেষ্টা বাজারে পরিলক্ষিত হতে পারে ।

দীর্ঘ মেয়াদী বিনিয়োগে বিটকয়েন

নিচের চার্টটি সাপ্তাহিক চার্ট । সাধারণত দীর্ঘ মেয়াদী বিনিয়োগের সুযোগ বের করতে এটি বেশ সহায়ক । ৬ সপ্তাহ ধরে বিটকয়েনে দরপতন অব্যহত রয়েছে । ৩৪৫০০ ডলারের সাপোর্টকে সম্মান করলে বিটকয়েনে পরপর দুইটি সাপোর্ট সৃষ্টি করবে যা বিনিয়োগকারীদের মাঝে “Double Bottom” নামে পরিচিত । যা বিটকয়েনকে পুনরায় ৫৫ হাজার ডলারে অতি সহজেই নিয়ে যেতে পারবে । তবে এখানে একটু ভলিউমের দিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে । কারন নিম্নগামী বিনিয়োগকারীরা এখান থেকে সুযোগ নেয়ার চেষ্টা করতে পারে ।

সাপ্তাহিক চার্ট

যদি বিটকয়েন কোন কারনে ৩৪৫০০ ডলারের সাপোর্ট ধরে রাখতে না পারে তাহলে মধ্যম মেয়াদেও বিটকয়েন নিম্নগামী । অনেক উর্ধগামী বিনিয়োগকারীরাও তখন তাদের বিনিয়োগ থেকে বেরিয়ে যেতে চাইবেন । যা বাজারে অতিরিক্ত সরবরাহের সৃষ্টি করবে । ফলে চাহিদার অভাবে দিন দিন বিটকয়েন তার দর হারাতে থাকবে । এমনটি হলে বাজারে একটি বড় ধরনের মূল্যহ্রাসের দেখা দিবে ।

লেখকের ব্যক্তিগত মতামত

যেহেতু বিটকয়েনের সরবরাহ সীমাবদ্ধ সেহেতু দীর্ঘমেয়াদে এটির মূল্য আরও বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে । এখানে দীর্ঘমেয়াদ হিসেবে পরবর্তী ৫ বছর বা তার ঊর্ধ্বে দেখা হচ্ছে । বিটকয়েনে আপনাদের বিনিয়োগ থাকলে সেটাকে পরবর্তী ৫ বছরে একটা ভাল লাভের আশা করতে পারেন । যদি লাভে থাকেন তাহলে লাভের কিছুটা অংশকে ডলারে রেখে দিতে পারেন । যা নিন্মমুখী বাজারে আরও স্বল্পমূল্যে বিটকয়েন কিনতে সাহায্য করবে ।

কেবল কিনে রেখে দিলেই যে বিটকয়েনের মূল্য বৃদ্ধি পাবে এমনটা ভাববেন না । বাজারে বিটকয়েনের মূল্য এর সরবরাহ ও চাহিদার উপর নির্ভর করে । বর্তমানে চাহিদার বৃদ্ধি দেখা যাচ্ছে না । ফলে স্বল্প বা মধ্যম মেয়াদে বিটকয়েন পুনরায় সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌছতে পারবে না ।

বি.দ্রঃ এখানে করা বিশ্লেষণটি সম্পূর্ণ লেখকের ব্যক্তিগত মতামতের ভিত্তিতে করা । আপনার জ্ঞানকে বিকশিত করাই আমাদের লক্ষ্য । কোথাও বিনিয়োগের পূর্বে অবশ্যই আপনার নিজের বিশ্লেষণকে প্রাধান্য দিবেন । কয়েন আলাপ কখনও কোথাও বিনিয়োগে উৎসাহিত করে না । আপনিও কিভাবে সফল বিনিয়োগ করতে পারেন তা জানতে হলে এই নিবন্ধটি পড়ে শিখে নিতে পারেন ।

Continue Reading
1 Comment

1 Comment

  1. Pingback: টেরা লুনা ও টেরা ইউএসটি কি স্ক্যাম ? - কয়েন আলাপ

মতামত দিন

Your email address will not be published.

ট্রেন্ডিং পোস্ট

Copyright 2021-22. All rights reserved.