Connect with us
20220205-223038-0000

ক্রিপ্টোকারেন্সি সংবাদ

অবৈধ লেনদেন প্রতিরোধে একাউন্ট বন্ধ করছে বাইন্যান্স

Published

on

বাইন্যান্স নাইজেরিয়ায় মোট ২৮১টি একাউন্ট সীমিত আকারে বন্ধ করেছে, এই সিধান্তটি কোম্পানিটির আন্তর্জাতিক মানি লন্ডারিং মানকে ঠিক রাখতে সাহায্য করবে। রয়টার্স (Reuters) অনুসারে ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ বাইন্যান্স নাইজেরিয়ান ব্যবহারকারীদের মোট ২৮১টি ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টের ব্যবহার সীমাবদ্ধ করেছে।

বাইন্যান্স সি.ই.ও চাংপ্যাং জাও Changpeng Zhao (CZ) এই গ্রাহকদের পাঠানো একটি চিঠিতে বলেছেন যে “ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে—এ ঘটনাতে আন্তর্জাতিক আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষের নজরদারিতেই হয়ে থাকে।” তিনি আরো বলেন, “বর্তমানে, আমরা আরও ৭৯টি রেগুলেশন (Regulation) সমস্যার সমাধান করেছি এবং অন্যগুলোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। আইন প্রয়োগ নয় এমন সব মামলা দুই সপ্তাহের মধ্যে সমাধান করা হবে।”

Binance বাইন্যান্স এর রেগুলেশন সমস্যা
বেশ কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিলো, বাইন্যান্স কে অনেক দেশের সরকার প্রশ্নবিদ্ধ করে। অনেক দেশে তো এটির ব্যবহার নিষেধ করা হয়েছিলো। এই মাসের শুরুর দিকে, Binance এর অনেক ধরনের নিয়ন্ত্রক ত্রুটিগুলি সামনে এনেছিলো। রয়টার্স (Reuters) একটি তদন্ত অনুসারে, CZ এক্সচেঞ্জের দুর্বল KYC (Know Your Customer) চেক সম্পর্কের শর্তগুলোকে উপেক্ষা করেছে, যা মানি লন্ডারিং এবং অন্যান্য অবৈধ কার্যকলাপের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষার জন্য প্রথম সারিতে ব্যবহার করা হয়।

২০১৯ সালে প্রাক্তন গ্লোবাল মানি লন্ডারিং রিপোর্টিং অফিসার কারেন লং প্রেরিত একটি বার্তা বলেছিলেন যে CZ কোনও KYC চায় না৷ রয়টার্সের তদন্তে আরও দেখা গেছে যে বাইন্যান্স ৪৪টি চিঠির বিষয়ে জার্মান আইন প্রয়োগকারীদের সাহায্য করেনি যেখানে প্রায় ২ মিলিয়ন ইউরো(প্রায় ২.২ মিলিয়ন ডলার) মূল্যের লেনদেন যা চুরি এবং মানি লন্ডারিং সাথে জড়িত বলে বিশ্বাস করা হয়েছিল।

হল্যান্ড এবং জাপানে নিয়ন্ত্রকরা এক্সচেঞ্জের বিরুদ্ধে ভোক্তা সতর্কতা জারি করেছে। কেম্যান দ্বীপপুঞ্জ (Cayman Islands)এবং ইতালি (Italy) বলেছে যে বাইন্যান্স তাদের নিযেদের দেশে ব্যবসা করার জন্য লাইসেন্সপ্রাপ্ত নয়।

মালয়েশিয়ায় (Malaysia) নিয়ন্ত্রকরা বেআইনিভাবে এখতিয়ারে কাজ করার জন্য বাইন্যান্স এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরণের পদক্ষেপ নিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের সরকারী নিয়ন্ত্রকরা ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের বিরুদ্ধে একটি ভোক্তা সতর্কতা জারি করেছে। এই জারিটি কয়েক মাস পরে আরও দ্বিগুণ হয়ে যায়, সরকারী নিয়ন্ত্রকরা দাবি করে যে বাইন্যান্স মার্কেটস লিমিটেড – এক্সচেঞ্জটি নিয়ন্ত্রিত করা সম্ভব হচ্ছিলো না। কারন হিসেবে তারা উল্লেখ করে যে- বাইন্যান্স সরকারী নিয়ন্ত্রককে প্রাথমিক তথ্য সরবরাহ করতে ব্যর্থ হয়।

বাইন্যান্স চেষ্টা করচ্ছে যত দ্রুত সম্ভব এই রকম সব ধরণের সমস্যাগুলো সমাধান করে পুনরায় এ দেশগুলোতে পুরোদমে ব্যবহারকারীদের সেবা দিতে।

Continue Reading
Click to comment

মতামত দিন

Your email address will not be published.

ট্রেন্ডিং পোস্ট

Copyright 2021-22. All rights reserved.